Our News

Uncategorized

টেসলা ইলেকটৃিক গাড়ি

Alternative Antriebe auf der AMI বড় আকারে ইলেকট্রিক গাড়ি নির্মাণের সাহস যারা দেখাচ্ছে, তাদের মধ্যে প্রথম সারিতে রয়েছে মার্কিন সংস্থা ‘টেসলা’৷ বাস্তব পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে এই গাড়ির ডিজাইনেও প্রায় সবদিক ভাবা হয়েছে৷

টেসলা মডেল এস পারফর্মেন্স গাড়িটির অ্যাক্সিলারেশন দুর্দান্ত৷ রেয়ার অ্যাক্সল-এ বসানো ইলেকট্রিক মোটরটি হল ৩১০ কিলোওয়াটের, সর্বোচ্চ টর্ক ৬০০ নিউটনমিটার, যা কিনা প্রথম রেভোলিউশন থেকেই পাওয়া যায়৷ জার্মান অটোমোবাইল ক্লাব-এর মার্টিন রুডর্ফার বলেন, ‘‘আমরা আপনাদের জন্য টেসলা মডেল এস পারফর্মেন্স গাড়িটি ভালোভাবে পরীক্ষা করেছি৷ হালফ্যাশানের এই লিমুজিন-টি নাকি এক ব্যাটারি চার্জে ৫০০ কিলোমিটার অবধি যেতে পারে – পুরোপুরি ইলেকট্রিক৷”

থামা অবস্থা থেকে ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার গতিতে পৌঁছতে টেসলা মডেল এস পারফর্মেন্স গাড়ির সময় লাগে চার দশমিক চার সেকেন্ড৷ ওভারটেক করার সময় ঘণ্টায় ষাট কিলোমিটার থেকে ঘণ্টায় একশো কিলোমিটার গতিতে যেতে লাগে দুই দশমিক এক সেকেন্ড৷ সর্বোচ্চ গতি ঘণ্টায় ২১০ কিলোমিটার৷

Ein Elektro-Auto des Modells Tesla Model S wird aufgeladenটেসলা মডেল এস

গাড়ির রিচার্জেবল ব্যাটারিগুলি গাড়ির মেঝেতে বসানো, কাজেই অভিকর্ষ বিন্দু নীচের দিকে৷ অর্থাৎ আচমকা ডানদিক-বাঁদিক কাটালে গাড়ি উল্টে যাবার ভয় কম৷ এডিএসি-র ব্রেক টেস্টে মডেল এস ৩৪ মিটার পরেই দাঁড়িয়ে পড়ে৷ তবে নতুন টেসলা গাড়ির জন্যে কোনো কলিশন অ্যাভয়ডেন্স সিস্টেম নেই৷

ডিজাইনের বিশেষত্ব

চোখে পড়ার মতো গাড়ি৷ টেসলা মডেল এস গাড়িটিতে ইটালীয় এবং ব্রিটিশ কার ডিজাইনকে একত্রিত করা হয়েছে, যদিও গাড়িটি বানানো হয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে৷ তার হালকা-পাতলা আকার দেখে মাসেরাতি কিংবা জাগুয়ারের আভিজাত্যের কথা মনে পড়াটাই স্বাভাবিক৷ মার্টিন রুডর্ফার বলেন, ‘‘ইলেকট্রিক গাড়িটি চলার সময় এতো কম শব্দ করে যে, ফিস ফিস করে কথা বললেও শোনা যায় – যদি না সাউন্ড স্টুডিও সিস্টেমে জোরে গান শোনা হয়৷ নিউম্যাটিক সাসপেনশনের ফলে টেসলা মডেল এস চড়া খুবই আরামের, যদিও সুবিশাল চাকাগুলো তাতে কিছুটা বাদ সাধে৷ স্টিয়ারিংও সুন্দর ও সরাসরি ভাবে কাজ করে৷ সব মিলিয়ে টেসলা-র প্রথম নিজস্ব মডেল হিসেবে গাড়িটি উতরেছে বৈকি৷”

 

  • Share:

Leave a Comment

sing in to post your comment or sign-up if you don't have any account.